কলকাতায় করোনার দাপট চলছেই, বেসামাল রাজ্য! 

করোনা যেন ব্যাটে তাণ্ডব ছড়ানো ভিভ রিচার্ডস, কন্টেনমেন্ট জোনে কড়া পাহারা, আর্সেনিকা আলাবামার মতো হোমিওপ্যাথিক ওষুধ কিংবা প্রনপসিশনে চিকিৎসা। কোনও বোলারই দাঁড়াতে পারছে না ভিভ এর ব্যাটের সামনে। শনিবার চব্বিশ ঘণ্টায় কলকাতায় করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা একশো পঞ্চাশ। রাজ্যে চারশো চুয়ান্ন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মৃত বারো। রাজ্যে মোট মৃত্যুর সংখ্যা চারশো তেষট্টি। বিস্ময় এর কথা ঘিঞ্জি বস্তি এলাকা নয়, কলকাতায় করোনা বেশি ছড়াচ্ছে দক্ষিণ কলকাতার অভিজাত বহুতল এবং আবাসনে। কলকাতায় কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা তিনশো একান্ন থেকে বাড়িয়ে একহাজার নয় করা হয়েছে।

করোনা যেন ব্যাটে তাণ্ডব ছড়ানো ভিভ রিচার্ডস, কন্টেনমেন্ট জোনে কড়া পাহারা, আর্সেনিকা আলাবামার মতো হোমিওপ্যাথিক ওষুধ কিংবা প্রনপসিশনে চিকিৎসা। কোনও বোলারই দাঁড়াতে পারছে না ভিভ এর ব্যাটের সামনে। শনিবার চব্বিশ ঘণ্টায় কলকাতায় করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা একশো পঞ্চাশ। রাজ্যে চারশো চুয়ান্ন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মৃত বারো। রাজ্যে মোট মৃত্যুর সংখ্যা চারশো তেষট্টি। বিস্ময় এর কথা ঘিঞ্জি বস্তি এলাকা নয়, কলকাতায় করোনা বেশি ছড়াচ্ছে দক্ষিণ কলকাতার অভিজাত বহুতল এবং আবাসনে। কলকাতায় কন্টেনমেন্ট জোনের সংখ্যা তিনশো একান্ন থেকে বাড়িয়ে একহাজার নয় করা হয়েছে।

তাও করোনা ছড়াচ্ছে। মহারাষ্ট্র, দিল্লি, তামিলনাড়ু কিংবা গুজরাটের তুলনায় যদিও পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণের হার অনেক কম, তা সত্ত্বেও প্রশাসন উদ্বিগ্ন কারণ পাশাপাশি ডেঙ্গুর মরশুমও এসে গেল বলে। ইতিমধ্যে কলকাতায় বহু পরিষেবা চালু হয়েছে। রবিবার থেকে বাল্লিগঞ্জ - টালিগঞ্জ রুটে এক কামরার ট্রাম চলতে শুরু করলো। প্রশাসনের কাছে এটাও চ্যালেঞ্জ। একদিকে নাগরিক জীবন সচল রাখা, অন্যদিকে করোনা নিয়ন্ত্রণ। ইতিমধ্যে বর্ষা এসে গেছে দক্ষিণ বঙ্গে। বৃষ্টি করোনা কমায় না বাড়ায় সেইদিকে দৃষ্টি এখন বিশেষজ্ঞদের।

পাঠকের মন্তব্য