চলে গেলেন অভিনেতা ইরফান খান

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ইরফান খান চলে গেলেন। গত মঙ্গলবারই তাকে মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে কেতালনের সংক্রমণের জন্য ভর্তি করা হয়েছিল। পরে রাখা হয়েছিল আইসিসিইউতে। কিন্ত সুস্থ হয়ে আর ফিরে আসা হয়ে ওঠেনি। বুধবার সকালে মাত্র ৫৩ বছর বয়সে এই প্রতিভাময় অভিনেতার মৃত্যুতে সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তিনি রেখে গিয়েছেন স্ত্রী সুতপা শিকদার ও দুই পুত্রকে। ইরফানের জন্ম রাজস্থানের জয়পুরে। তাঁর পরিবার এখনও সেখানেই থাকে।

সেখান থেকেই দিল্লিতে ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামায় পড়তে এসেছিলেন। এরপর পাকাপাকি ভাবে যোগ দেন অভিনয়ের পেশায়। হিন্দি ও ইংরাজি বহু চলচ্চিত্রেই তিনি অভিনয় করেছেন। ‘পিকু’ ছবিতে তার অভিনয় দর্শকের প্রভূত প্রশংসা পেয়েছিল। গত সপ্তাহেই প্রয়াত হয়েছেন ইরফানের মা সায়েদা বেগম। লকডাউনের কারণে জয়পুরে মায়ের দাফনে যোগ দিতে পারেননি ইরফান। তিনি মুম্বইতেই ছিলেন। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ তিনি। তাই ভিডিও কলেই পরিবারের সঙ্গে সবসময় যোগাযোগ রেখে যাবতীয় কাজ সেরেছিলেন। ২০১৮ তে তার নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার ধরা পরে তাঁর। বিরল রোগের চিকিৎসায় প্রায় একবছর লন্ডনে থেকে চিকিৎসা করেছিলেন। অসুস্থতা থেকে খানিকটা সুস্থ হয়ে আংরেজি মিডিয়াম চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করেছিলেন। মার্চ মাসে মুক্তি পেয়েছে ইরফানের শেষ চলচ্চিত্র আংরেজি মিডিয়াম। তখনও শরীর অসুস্থ ছিল বলে তাঁকে প্রচারে দেখা যায়নি। যদিও করোনার কবলে কয়েকদিন পরই বন্ধ হয়ে যায় এই ছবির প্রদর্শন।

পাঠকের মন্তব্য