‘বিএনপির রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই’

প্রেসটাইম২৪: আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, বিএনপির রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই। সুতরাং তাদের আন্দোলন সংগ্রামের কোন মানে হয় না। বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সমিতির ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত সম্মেলনে বুধবার দুপুরে প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এই মন্তব্য করেন।

হানিফ বলেন, ‘বিএনপি নেতা তারেক রহমানককে সিঙ্গাপুর আদালতও তাকে দণ্ডিত করেছে। বাংলাদেশে খালেদা জিয়ার জেল হয়েছে। সুতরাং তারা শুধু বাংলাদেশে নয় দুর্নীতিতেও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। সেকারণে বিএনপির এদেশে রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই। এরকম নেতাদের জন্য আন্দোলন কর্মসূচির কোন মানে হয় না’।

বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘ যদি রাজনীতি করতে চান তাহল স্বচ্ছ, পরিচ্ছন্ন নেতাদের সামনে এনে রাজনীতি করুন। না হয় দেশের মানুষ বিএনপির এইসব আন্দোলনে দেশের মানুষ সারা দিবে না’ ।

‘খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ঠেকানোর আন্দোলন হয়, বিচার হওয়ার পর রায় বাস্তবায়ন না হওয়ার আন্দোলন হয়। শুধু আন্দোলন নয় রীতিমতো তাণ্ডব চালানো হয়। এইবার দুর্নীতিবাজ নেতার জেল হওয়ায় আন্দোলন করছে। আসলে এরা জনগণের জন্য রাজনীতি করে না। এরা নিজেদের স্বার্থের জন্য রাজনীতি করে।’

হানিফ বলেন, ‘বিএনপি নেতারা বলছে যে, ‘রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য। তড়িঘড়ি করে এ রায় দেয়া হয়েছে’। এই মামলা ১০ বছর আগের। মামলা করেছিল তত্ত্বাবধায়ক সরকার। বর্তমান আদালত তাদের সাজা দিয়েছে এখানে আমাদের কী দোষ? কত বছর মামলা ঝুলে থাকলে তড়িঘড়ি হতো না?’

‘খালেদা জিয়া জানতেন এই মামলায় তার শাস্তি অনিবার্য। তাই তিনি হাজিরা না দিয়ে, নানা অজুহাত দেখিয়ে মামলা দেরি করেছেন। তিনি ভেবেছিলেন ১৪ সালে ক্ষমতায় এসে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করে ফেলবেন। কিন্তু তা হয়নি। তার কারাদণ্ড হয়েছে। দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার পথ অব্যাহত রয়েছে’।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে মেডিকেল এসোসিয়েশনের সভাপতি মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, শ্রমিক লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান সিরাজ। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আবদুস সাত্তার।