বিরাটদের পাশেই দাঁড়াচ্ছেন হরভজন

দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম দুই টেস্টের পরে সিরিজে ০-২ পিছিয়ে। তার পরে সংবাদমাধ্যমে তাঁর প্রথম দল গঠন নিয়ে সমালোচনা করেছেন অনেকেই। যে দলে ঢুকে সুর মেলাতে দেখা গিয়েছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার অনেক প্রাক্তন ক্রিকেটারকেও। কিন্তু সেই দলে ঢুকতে নারাজ ভারতীয় অফস্পিনার হরভজন সিংহ। তাঁর মতে, এটাই বিরাট কোহালির অধিনায়কত্বে ‘প্রথম প্রকৃত বিদেশ সফর’। কাজেই সমালোচনা না করে উৎসাহ দেওয়া উচিত ভারত অধিনায়ককে।

মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের মূল পর্ব শুরু হচ্ছে ইডেনে। যেখানে খেলতে দেখা যাবে এই মুহূর্তে ভারতীয় দলের বাইরে থাকা হরভজনকে। এ দিন হরভজনকে মনে করিয়ে দেওয়া হয়, কেপ টাউনে দুরন্ত বোলিং করার পরেও সেঞ্চুরিয়ন পার্কে ভুবনেশ্বর কুমারকে দলের বাইরে রেখে খেলতে নেমেছিল ভারত। শুধু তাই নয়, দক্ষিণ আফ্রিকায় ভার্নন ফিল্যান্ডার, কাগিসো রাবাডাদের বোলিং আক্রমণ সামলাতে যাঁকে ভারতীয় ব্যাটিংয়ের অন্যতম সেরা অস্ত্র বলা হচ্ছিল, সেই অজিঙ্ক রাহানে-কে প্রথম দুই টেস্টে খেলানো হয়নি। যার ফলে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ভারত অধিনায়ক। তা ছাড়া,  কেপ টাউন এবং সেঞ্চুরিয়ন পার্ক দু’জায়গাতেই তিনশো রানের কমে থাকা লক্ষ্যে পৌঁছাতেও ব্যর্থ ভারত। যার ফলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন টেস্টের টেস্ট সিরিজে এই মুহূর্তে ০-২ পিছিয়ে ভারত।

হরভজন যদিও এ ক্ষেত্রে বিরাট কোহালির সমালোচনা করতে নারাজ। বলছেন, ‘‘অধিনায়ক হওয়ার পরে এই প্রথম একটি প্রকৃত বিদেশ সফরে গিয়েছে বিরাট। কারণ শ্রীলঙ্কাকে আমি প্রকৃত বিদেশ সফর ধরছি না। দক্ষিণ আফ্রিকা হল সেই জায়গা যেখানে ব্যাটে-বলে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে লড়তে হচ্ছে ভারতীয় দলকে। সেই পরিস্থিতিতে এই মুহূর্তে বিরাটের দলের সমালোচনা না করে ওদের পাশে থাকা উচিত।’’