ছাত্র বিক্ষোভের মুখে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় দু’দিনের ছুটি ঘোষণা

শিক্ষক লাঞ্ছনাকারী কর্মকর্তাদের শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে রাজধানীর মহাখালীস্থ ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় দু’দিনের সব ক্লাস বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এসময় পূর্ব নির্ধারিত পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সলর অধ্যাপক সৈয়দ সাদ আন্দালিব স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্তের কথা আজ দুপুরে প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে এবং ক্যাম্পসের নোটিশ বোর্ডে টাঙ্গানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘বুধ ও বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো ক্লাস হবে না। তবে এ সময় পূর্ব নির্ধারিত পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে।’

এদিকে, আইন বিভাগের শিক্ষক ফারহান উদ্দিন আহমেদ রেজিস্ট্রার শাহুলসহ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের করা কমিটি আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা প্রত্যাখ্যান করায় নতুন একটি কমিটি করা হয়েছে। নতুন এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান আ ফ ম ইউসুফ হায়দারকে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষক অধ্যাপক আফসান চৌধুরী, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তাজদিন হাসান ও একজন ছাত্র প্রতিনিধি।

এ কমিটি আইনের শিক্ষক ফারহান উদ্দিন আহমেদকে নির্দিষ্ট ও প্রয়োজনীয় নীতিমালা মেনে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল কি-না তা খতিয়ে দেখবে।

গত ৩০ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন প্রশাসনিক কর্মকর্তার সাথে আইনের শিক্ষককের সাথে কি ঘটেছিল তার ব্যাখ্যা করে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

এদিকে, শিক্ষক লাঞ্ছনাকারী কর্মকর্তাদের শাস্তির দাবিতে আজ বুধবারও শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ উত্তাল ছিল ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরো ক্যাম্পাস।

আজ তৃতীয় দিনের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে উপস্থিত হলেও কোনো ক্লাসে যোগ দেয়নি। বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ও দুই নম্বর ভবনের সব গেট বন্ধ করে দিয়ে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেয়। এসময় ভেতর থেকে শিক্ষকদের বের হতে দিলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো কর্মকর্তাদেরকে বের হতে দেয়নি। বিকেল পর্যন্ত তাদের অবরুদ্ধ করে রাখেন বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা। এর পাশাপাশি শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করতে থাকলে কয়েকজন শিক্ষক তাদের সড়ক অবরুদ্ধ করতে নিষেধ করেন এবং ক্যাম্পাসের ভেতরেই তারা বিক্ষোভ করতে থাকে।

বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে শিক্ষার্থীরা রাস্তার দুই পাশে মানববন্ধন করে।

এর আগে দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ফ্যাকাল্টি মেম্বার শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানান।

উল্লেখ্য, আইন বিভাগের শিক্ষক ফারহান উদ্দিন আহমেদ রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ শাহুল আফজালের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার পর গত রোববার থেকে উত্তেজনা ও ছাত্র বিক্ষোভ চলছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে। চুক্তিভিত্তিক নিয়োগে আইন বিভাগে শিক্ষকতা করছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষার্থী ফারহান। চুক্তির মেয়াদ ৩০ আগস্ট পর্যন্ত হলেও তার আগেই তাকে কর্মচ্যুত করে নোটিশ দেয়ার প্রতিবাদ করলে তার উপর হামলা হয়।