হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে ঘরের কাজ করুন

অফিসের কাজের চাপ! ৯ ঘণ্টা কাজ করে বাড়ি ফিরে ক্লান্তি! সব মিলিয়ে ঘরের কাজ করার সময় আমরা প্রায় পাই না।

টানা অতগুলো ঘণ্টা অফিসে বসে কাজ। শরীরচর্চার অভাবেই বাসা বাঁধছে বিভিন্ন রোগ। বাড়ছে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি। সমস্যা দূরে রাখতে শরীরচর্চার কথা বলে থাকেন চিকিত্সকেরা। কিন্তু নিয়মিত শরীরচর্চা করতেও অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আলস্য আসে আমাদের। আর তাই শরীরচর্চার বিকল্প হিসেবে ঘরের কাজ বেছে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

যাঁরা হার্টের সমস্যা ভুগছেন তাঁদের হাঁটা, তাই চি, যোগাসন, ব্যালান্স ট্রেনিংয়ের পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিত্সকরা। আর যদি সময় বের করতে না পারেন তা হলে বিছানা করা, কাপড় কাচা, নিয়মিত বাজার করার মতো কাজও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমাতে পারে বলে জানাচ্ছেন তাঁরা।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কার্ডিওলজিস্ট ড্যানিয়েল ফোরম্যান বলেন, ‘‘বয়স্ক রুগীরা চিকিত্সকের কাছে গেলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তাদের শুধু ওষুধ দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু তার সঙ্গেই যদি ঘরের কাজকর্ম করার পরামর্শ দেন চিকিত্সকরা তা হলে ঝুঁকি যেমন কমে, তেমনই শারীরিক শক্তি বাড়ে, ভারসাম্যও উন্নত হয়। হার্টের সমস্যার থেরাপির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিক ঘরের কাজ করা, হাঁটা, সিঁড়ি ভাঙা। এগুলো নিয়মিত না করার কারণেই ৭৫ বছর বয়স হওয়ার আগেই অধিকাংশ ক্ষেত্রেই মানুষ ওষুধের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে।’’

সার্কুলেশন মেডিক্যাল জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণার ফল প্রকাশিত হয়েছে।