জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছিঃশামিম আরা বেগম

সংগৃহীত

By;রেদওয়ানুল হক:18 December

ঢাকা-১১ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শামিম আরা বেগম বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়েই আমাদের প্রচারনা চালাতে হচ্ছে। নেতা কর্মীদের তো কোন নিরাপত্তা নেই-ই প্রার্থী হিসেবে আমারও কোন নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। তিনি বলেন, ইতিপূর্বে আমার স্বামীকে হত্যার হুমকী দিয়ে বাসায় কাফনের কাপড় পাঠানো হয়েছিল।
মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) ঢাকা-১১ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপির মহানগর উত্তর সভাপতি এম.এ কাইয়ূমের স্ত্রী শামিম আরা বেগমের কাছে নির্বাচনী প্রচারণার অবস্থা জানতে চাইলে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি অভিযোগ করে বলে, গত শনিবারের প্রচারণার ছবি তুলে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ সেই ছবি থেকে শনাক্ত করে ৯৭নং ওয়ার্ডের খোকন নামের এক কর্মীকে গত রাতে ধরে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ। এর আগে বাড্ডা থানার অপর এক কর্মীকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করা হয়। যা আপনার বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখেছেন। এছাড়া নিয়মিতভাবে আমাদের কর্মীদের বাড়ী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে হত্যা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ প্রার্থী এ.কে.এম রহমত উল্লাহর সমর্থকরা।
তিনি আরো বলেন, এমন পরিস্থির কারণে ছাত্রদল, যুবদল, মূলদল সহ কোন সিনিয়র নেতাকে আমি প্রচারণায় কাজে লাগাতে পারছি না। ফলে বাধ্য হয়ে মহিলা দলের গুটি কয়েক নেতা কর্মীকে নিয়ে কোন রকমে চলছে আমার নির্বাচনী প্রচারণা। এর মধ্যেও যারা নামছে তাদের ছবি দেখে তালিকা করা হচ্ছে এবং নিয়মিত গ্রেফতার চলছে। গত ১০ তারিখ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৩০ জন নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে আমরা যতটুকু নামতে পারছি তাতে জনগণ অভূতপূর্ব সাড়া দিচ্ছে। তারা এবার ভোটের মধ্যেমে দূনীতি ও দুঃশাসনের জবাব দিবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, পরিবেশ যতই খারাপ হোক না কেন আমরা মাঠে থাকবো এবং ৩০ তারিখে ভোটের মাঠে আমরা সর্বশক্তি নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলব কোন অবস্থাতে যাতে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে আওয়ামী লীগ পুণরায় ক্ষমতা দখল করতে না পারে সেজন্য আমরা জীবন বাজি রেখে লড়বো। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ন্যায় একতরফা ভাবে ক্ষমতায় যাওয়া এবার সম্ভব নয় বলে বিরোধী প্রার্থীকে সতর্ক করেন তিনি।
নির্বাচন কমিশনের নিরাপেক্ষতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেটাতো আরেক টা সরকার যা আওয়ামী লীগের চেয়েও ঝুকিপূর্ণ আমাদের জন্য। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করতে ব্যর্থ এই কমিশন সরকারের নির্দেশে বিরোধীদের দামিয়ে রেখে শেখ হাসিনাকে পুনরায় ক্ষমতায় বসাতে চায়। অন্যথায় কেন প্রার্থী গ্রেফতার করা হচ্ছে ক্ষোভের সাথে এমন প্রশ্ন করেন তিনি।