গণতান্ত্রিক কর্সুচীতে কোন বাধা নেই, তবে জালাও পোড়াও করলে ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাদের প্রস্তাবের মধ্যে গেপ আছে। সত্যিকারের রাজবন্ধি হলে তাদেরকে মুক্ত করতে ব্যবস্থা নিতে আইনমন্ত্রীকে নির্দেশনা দেন তিনি। সৌহার্দ্যপুর্ণ পরিবেশে সংলাপ ফলপ্রসূ হয়েছে। গণতান্ত্রিক কর্সুচীতে কোন বাধা নেই তবে জালাও পোড়াও করলে তার ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, খালেদা জিয়ার জামিন প্রসঙ্গে তত্বাবধায়ক সরকার মামলা দিয়েছে কিন্তু তা নিষ্পত্তি করতে তাদের গাফলতি ছিলো। আদালত যদি তাকে জামিনে মুক্তি দেয় তাতে কোন বাধা নাই। নির্বাচনের প্রক্রিয়া এগিয়ে যাওযার সাথে সাথে আলোচনা চলতে পারে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, লেবেল প্লেইং ফিল্ড নিশ্চিত করা হবে। কেউ সরকারি কোন সুবিধা নেবে না। সবাই সমান সুবিধা পাবে।
সেনাবাহিনীর বিষয়টি নিয়ে সেনা বাহিনী টার্স্ফোর্স হিসেবে মোতায়েন থাকবে। প্রধানমন্ত্রী সাত দফার বেশিরভাগই মেনে নিতে চেয়েছেন কিন্তু তারা নতুন করে আবার দাবি এনে নির্বাচনকে পিছিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। যাতে কোন অপশক্তি মাথা চাড়া দিতে পারে। সুষ্টু নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন শেখ হাসিনা। কোন প্রকার কারচুপি হবে না। আওয়ামী লীগ সংবিধানের বাইরে যাবে না।

অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য সব ধরনেন ব্যবস্থা নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার মাধ্যমে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে অপশক্তিকে সুযোগ না দিতে আহ্বান জানান তিনি।