গ্যাসের দাম বাড়িয়ে কয় টাকা পাবে সরকার : এরশাদ

রাজধানীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, বিশ্ববাজারে যখন জ্বালানি তেলের মূল্য কমছে, তখন দেশে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব ফেলবে।

সাবেক এ রাষ্ট্রপতি গ্যাসের দাম বাড়ানোয় সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘গ্যাসের দাম বাড়ানো ঠিক হয়নি। জনগণের খুব ক্ষতি হবে। এমনকি শিল্প কল-কারখানারও ক্ষতি হবে। আমি জানি না, কেন এই গ্যাসের দাম বাড়ানো হলো। এত টাকা আমরা খরচ করছি বড় বড় প্রজেক্টে। কিন্তু এ থেকে কয় টাকা পাবে সরকার। না করলে কী হতো? গরিব মানুষের খুব কষ্ট হবে।’

এ সময় এরশাদ জানান গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে তাঁর দল কর্মসূচি দেবে।

আজ রোববার রাজধানীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় যোগদান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ দূত এরশাদ এসব কথা বলেন।

জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারের সভাপতিত্বে এরশাদ বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বলেন, জাতীয় পার্টি রাজনীতিতে বড় ফ্যাক্টর। জাতীয় পার্টিকে যারা ধ্বংসের পাঁয়তারা করে, তারা নিজেরাই ধ্বংস হয়ে যায়।

গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে (বিইআরসি) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে বিইআরসির চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম জানান, ১ মার্চ থেকে এক চুলার জন্য দিতে হবে ৭৫০ টাকা। দুই চুলার জন্য দিতে হবে ৮০০ টাকা।

জুনে দ্বিতীয় দফায় বাড়বে গ্যাসের দাম। ১ জুন থেকে এক চুলার জন্য দিতে হবে ৯০০ টাকা এবং দুই চুলার জন্য দিতে হবে ৯৫০ টাকা।

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী মঙ্গলবার রাজধানীতে আধাবেলা হরতালের ডাক দিয়েছে বামপন্থী দুটি দল সিপিবি ও বাসদ। এতে সমর্থন দিয়েছে বিএনপি।

তবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি নিয়ে এই প্রথম প্রতিক্রিয়া জানালেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ।