মাগুরা মহম্মদপুরে ডাকাতি : গৃহবধূকে কুপিয়ে জখম

মাগুরা প্রতিনিধিঃ মহম্মদপুরে নহাটার সালধা এলাকায় শনিবার রাত ২টার দিকে শিক্ষা অফিসার এনামুল হকের বাড়িতে পরিবারের সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে স্বর্ণ ও নগদ অর্থ সহ ৫ লক্ষ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে গেছে দূর্বত্তরা। এসময় ডাকাতরা ইসমত আরা নামে ওই পরিবারের এক গৃবধুকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরিবারের প্রধান শিক্ষা অফিসার এনামুল হক বলেন, রাতে তিনি বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখে ঘুমিয়ে পড়ছিলেন। হঠাৎ ঘুম ভেঙ্গে দেখতে পায় ৫-৭ অপরিচিত লোক তার হাত পা দড়ি দিয়ে বাঁধার চেষ্টা করছে। এ সময় তারা বুকে ও গলায় অস্ত্র ঠেকিয়ে চিৎকার করতে নিষেধ করে। একই সময়ে তারা পাশের রুমে থাকা তার বৃদ্ধা মা ও ছেলেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ফেলে। একই ঘরের আরেকটি কক্ষে স্ত্রী ইসমত আরা ও ছোট ছেলে ঘুমাচ্ছিল। তারা ঘুমন্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে ছেলেকে তার কোল থেকে নিয়ে একটি কক্ষে পরিবারের সকলকে জিম্মি করে। পরে মুখোশ পরা সংঘবদ্ধ ডাকাত দলটি স্বর্ণ-অলংকারসহ প্রায় ৫ লক্ষ টাকার মালামাল ডাকাতি করে নিয়ে যায়। ডাকাতরা ঘর থেকে বের হয়ে গেলে বাকি সদস্যরা চিৎকার করলে স্থানীয়রা এগিয়ে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা ইসমত আরাকে উদ্ধার করে ওই রাতেই মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো: নুরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, ডাকাতি নয় এটি একটি চুরির ঘটনা তবে বাড়ির মালিক পক্ষ টের পাওয়ায় কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।