আওয়ামীলীগের উপর মিথ্যা অপবাদের অভিযোগ

শ্রমিক ফেডারেশনকে অবৈধ ও ভূয়া বলার প্রতিবাদে মৌলভীবাজারে সংবাদ সম্মেলন

আশরাফ আলী: মৌলভীবাজার জেলা অটোরিক্সা, অটোটেম্পু, মিশুক, সি.এন.জি, শ্রমিক ইউনিয়ন (রেজিঃ নং চট্ট- ২৩৫৯) এর নেতৃবৃন্দের মিথ্যা অপপ্রচারের বিরোদ্ধে মৌলভীবাজার জেলা শ্রমিক ফেডারেশন (রেজিঃ নং বি-১৯৯৮) এর কমিটিকে ভূয়া ও অবৈধ বলা এবং সরকার দল আওয়ামীলীগ এর নাম ভাঙ্গিয়ে অপপ্রচার, বিভ্রান্তি ও মিথ্যাচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৫ মে) রাতে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আলিম উদ্দিন হালিম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, বিগত কয়েক মাস যাবত জেলা অটোটেম্পু ,অটোরিক্সা শ্রমিকদের নিয়ে নানা সমস্যা চলে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৩মে জেলা অটোটেম্পু, অটোরিক্সা, মিশুক, সিএনজি সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ পাভেল মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক সেলিম সংবাদ সম্মেলন করে বাংলাদেশ অটোরিক্সা, অটোটেম্পু শ্রমিক ফেডারেশন (রেজিঃ নং বি-১৯৯৮) কে ভূয়া/অবৈধ উল্লেখ করে মিথ্যা ও ভূল তথ্য পরিবেশন করে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছেন।

জেলা অটোটেম্পু, অটোরিক্সা, বেবি, মিশুক, সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের (রেজিঃ নং চট্ট-২৩৫৯) নেতৃবৃন্দ বলেন, আমাদের কমিটি ভুয়া/অবৈধ এবং আমরা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজি, অপকর্মসহ বিভিন্ন অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছি। তিনি লিখিত বক্তব্যে তাদের কাছে প্রশ্ন রেখে বলেন, যদি আমরা অবৈধ/ভূয়া হয়ে থাকি তাহলে কিভাবে বাংলাদেশ সরকারের শ্রম পরিদপ্তরের ট্রেড ইউনিয়ন আমাদের কেন্দ্রীয় সংগঠনকে রেজিষ্ট্রেশন দিয়েছে? আমাদের সংগঠনকে একমাত্র অবৈধ বলার অধিকার রাখে বাংলাদেশ সরকারের ট্রেড ইউনিয়ন রেজিষ্ট্রার।

এসময় তিনি দাবী করে বলেন , বাংলাদেশ অটোরিক্সা, অটোটেম্পু শ্রমিক ফেডারেশন (রেজিঃ নং বি-১৯৯৮) মৌলভীবাজার জেলা উপ-কমিটির কোন নেতা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃত্ত নয়।
সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে তিনি আরোও বলেন, আমাদের ব্যক্তিগত ও পারিবারি অনেক বিষয় নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা হয়েছে যা অত্যান্ত দুঃখজনক। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
লিখিত বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সংগঠনের সভাপতি শিবলু মিয়া প্রতিপক্ষের দেয়া বক্তব্যর তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, বিগত ২৪ বছর যাবত জেলার অবহেলিত শ্রমিকদের দাবী আদায়ে কাজ করতে গিয়ে আমার কোটি টাকার বাড়ী ঘর ও সহায় সম্পদ হারিয়েছি।