যে ৫ খাবার টাক প্রতিরোধ করবে

প্রেসটাইম২৪: চুল পড়া বা টাক পড়ার সমস্যার কথা কমবেশি সবার মুখেই শোনা যায়। খাবার-দাবার, বায়ু দূষণ প্রভৃতির কারণে এই সমস্যায় পড়ছেন। অনেকে ভালো ট্রিটমেন্ট করেও টাক সমস্যা বা চুল পড়া রোধ করতে ব্যর্থ হন। অনেকেই হয়তো জানেন না, কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো চুল পড়া বা টাকের বিরুদ্ধে কাজ করে। সে রকমই ৫টি সুপারফুড যা চুল পড়া বা টাক প্রতিরোধে সাহায্য করে।

 

ডিম এবং দুগ্ধজাত খাবার: বায়োটিন(ভিটামিন বি৭) চুলের বৃদ্ধি ঘটায় এবং মানুষের টাক পড়া সমস্যা রোধ করে। দুধ, দই, পনির এবং অন্যান্য দুগ্ধজাত খাবারে প্রচুর পরিমাণ বায়োটিন রয়েছে। এছাড়া প্রয়োজনীয় পরিপূরক উপাদান প্রোটিন, ভিটামিন বি১২, আয়রন, জিঙ্ক এবং ওমেগা৬ ফ্যাটি এসিড রয়েছে যেগুলো চুলের স্বাস্থ্যসম্মত বৃদ্ধি ঘটায়।

 

ওটস: প্রতিদিন সকালের নাশতায় এক বাটি ওটস খাচ্ছেন? আপনি আশ্চর‌্য হয়ে যাবেন কীভাবে এটি আপনার টাক প্রতিরোধে সাহায্য করে। এতে উচ্চসমৃদ্ধ আঁশ, জিঙ্ক, ওমেগা৬ ফ্যাটি অ্যাসিড এবং পলিয়ানসেটার্ড ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। ওটস-এ উচ্চমাত্রায় ভিটামিন বি রয়েছে যা চুল বৃদ্ধি পেতে সাহায্য করে। এতে বেটা গ্লুকোন রয়েছে যা চুলের গ্রন্থিকোষকে মজবুত করে তোলে।

 

আলমন্ড: চুলের স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও দ্রুত বৃদ্ধি পেতে বায়োটিন এবং ম্যাগনেসিয়ামের জুড়ি নেই। এই উপাদান পাওয়া যাবে আলমন্ডে। নিয়মিত আলমন্ড খেলে চুল দ্রুত বাড়বে এবং স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

 

আখরোট: এতে ভিটামিন বি৭ এর পাশাপাশি রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিড যা চুল পড়া বন্ধ করে। চুলের গ্রন্থিকোষ মজবুত করার পাশাপাশি চুল গজাতে সাহায্য করে। যারা চুল পড়ার সমস্যায় ভুগছেন তাদের অবশ্যই এই বাদাম খাওয়া উচিত।

 

স্ত্রবেরি ফল: স্ত্রবেরির উপকারিতা সম্পর্কে আমরা কি জানি? এতে রয়েছে প্রচুর সিলিকা- খনিজ উপদান যা চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এতে থাকা ইলাজিক অ্যাসিড চুলপড়া রোধ করে এবং চুলকে ঘন করে।