সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমছে না

শনিবার সকালে এনএসসি টাওয়ার কমপ্লেক্স চত্বরে ‘সঞ্চয় সপ্তাহ-২০১৮’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেছেন, সরকার সুভিধাভোগীদের আশা-আকাক্সক্ষার কথা বিবেচনা করে বিভিন্ন সঞ্চয় প্রকল্পের বর্তমান সুদের হার বহাল রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে।

মোশাররফ বলেন, ‘বর্তমানে দেশে বিভিন্ন সঞ্চয় প্রকল্পের গ্রাহক সংখ্যা প্রায় দুই কোটি। তাদের আশা-আকাক্সক্ষা সরকারের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা বিভিন্ন সঞ্চয় প্রকল্পের বর্তমান সুদের হার অক্ষুণ্ন রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব।’

ব্যাংকের সঙ্গে সঞ্চয়পত্রের সুদ হারের তারতম্য থাকলেও জনগণের স্বার্থে সহসাই সমন্বয় হবে না। কারণ, এই মাধ্যমেই বিনিয়োগ করে আর্থিক নিরাপত্তা পায় সাধারণ মানুষ। বলা হয়, ব্যাংকিংখাতের সুদ হার ৬ থেকে ৭ শতাংশ। তবে সঞ্চয়পত্রে এই হার সর্বোচ্চ ১২ শতাংশ। উচ্চসুদ হারের কারণে সরকারের ভর্তুকি বাড়লেও সাধারণ মানুষের স্বার্থে এই হারই চালিয়ে যেতে চেষ্ট করবে সরকার।

চলতি অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র খাত থেকে ঋণ লক্ষ্য ধরা হয় ৩০ হাজার ১৫০ কোটি টাকা। কিন্তু অর্থবছরের আট মাসেই বিক্রি হয়েছে লক্ষ্যের ১০ শতাংশ বেশি। বছর শেষে যা গিয়ে দাঁড়াতে পারে ৪০ হাজার কোটি টাকা। সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করলে শুল্ক ছাড়ও পাওয়া যায় বলে জানান এনবিআর চেয়ারম্যান।

জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শামসুন্নাহার বেগম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।