পাল্টাপাল্টি ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কার করছে রাশিয়া ও ব্রিটেন

প্রেসটাইম২৪: সাবেক রুশ গুপ্তচর ও তার মেয়েকে নার্ভ এজেন্ট দিয়ে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় উত্তেজনার পারদ চড়েছে যুক্তরাজ্য ও রাশিয়ার মধ্যে।

ওই ইস্যুতে রাশিয়ার ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের পর এবারও রাশিয়াও পাল্টা প্রতিশোধ নিতে যুক্তরাজ্যের ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, মস্কোতে যুক্তরাজ্যের দূতাবাস থেকে ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে। তাদের সাত দিনের মধ্যে দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

একই সঙ্গে রাশিয়ায় ব্রিটিশ কাউন্সিল ও সেন্ট পিটার্সবার্গের ব্রিটিশ কনস্যুলেটও বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন দেশে থাকা ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে সাংস্কৃতিক বন্ধন দৃঢ় করার চেষ্টা করে থাকে যুক্তরাজ্য।

বিবিসি জানায়, গত ৪ মার্চ যুক্তরাজ্যের সালিসবেরির উইল্টশায়ারে একটি পার্কের বেঞ্চে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়ে ছিলেন সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল (৬৬) ও তার মেয়ে ইউলিয়া (৩৩)। পরে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মেডিকেল পরীক্ষায় স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে নোভিচক গ্রুপের একটি নার্ভ এজেন্ট দেওয়া হয়েছিল বলে জানা যায়। দলত্যাগের পর সাবেক রুশ গুপ্তচর স্ট্রিপাল যুক্তরাজ্যে বসাবাস করছেন।

বিষয়টি নিয়ে বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে কোনো ব্যাখ্যা না দেওয়ায় ১৪ মার্চ ২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয় যুক্তরাজ্য।

ওইদিন পার্লামেন্টে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে তেরেসা মে বলেন, ভিয়েনা কনভেশনের আওতায় যুক্তরাজ্য ২৩ রুশ কূটনীতিককে বরখাস্ত করবে। ছদ্মবেশে থাকা গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের এক সপ্তাহের মধ্যে যুক্তরাজ্য ছাড়তে হবে।

এর আগে সাবেক রুশ গুপ্তচর ও তার মেয়েকে হত্যাচেষ্টার ব্যাখা দিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ২৪ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছিল যুক্তরাজ্য। তবে রুশ কর্তৃপক্ষ তাতে সাড়া দেয়নি।

২৩ কূটনীতিককে বহিষ্কার ছাড়াও চলতি বছর অনুষ্ঠেয় ফুটবল বিশ্বকাপে রাশিয়ায় সরকারি প্রতিনিধি পাঠানো থেকেও যুক্তরাজ্য বিরত থাকবে বলে জানান তেরেসা।

দুই পক্ষের জলঘোলা হলেও এ নিয়ে অবশ্য দৃঢ় অবস্থানেই রয়েছে রাশিয়া। বরাবরই তারা অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।