বিসিআই কেন্দ্রীয় চুক্তির শীর্ষ ক্যাটাগরি থেকে বাদ ধোনী-অশ্বীন

সাবেক অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনী ও সিনিয়র অফ-স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বীন বিসিসিআই কেন্দ্রীয় চুক্তির শীর্ষ ক্যাটাগরি ’এ+ থেকে বাদ পড়েছেন। এই ক্যাটাগরীতে অধিনায়ক বিরাট কোহলিসহ মাত্র পাঁচজন খেলোয়াড় সুযোগ পেয়েছেন।

বিসিসিআই ঘোষিত নতুন চুক্তির আওতায় সর্বোচ্চ ক্যাটাগরিতে কোহলি ছাড়াও আরো আছেন রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, পেসার ভুবনেশ্বর কুমার ও জাসপ্রিত বুমরাহ। এই চুক্তির আওতায় এই পাঁচজন খেলোয়াড় প্রত্যেকে বার্ষিক সাত কোটি রুপি করে পাবেন।

ধোনী ও অশ্বীন একধাপ নীচে নেমে ’এ ক্যাটাগরিতে রয়েছেন। তাদের সাথে আরো আছেন রবীন্দ্র জাদেজা, মুরালি বিজয়, চেতশ্বর পুজারা, অজিঙ্কে রাহানে ও রিদ্ধিমান সাহা। এই সাতজন খেলোয়াড় বার্ষিক পাঁচ কোটি রুপি পাবেন।

এদিকে স্ত্রীর সাথে অশোভন আচরনের দায়ে পেসার মোহাম্মদ সামীর চুক্তি আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। এবারের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে সুরেশ রাইনা পুনরায় ফিরলেও যুবরাজ সিং ও তরুন রিশব পান্টে বাদ পড়েছেন।
কীর্ষ ক্যাটাগরি থেকে ধোনীর বাদ পড়া প্রসঙ্গে বিসিসিআই এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, এটা খুবই স্বাভাবিক যে নির্বাচকরারই এমনটা চেয়েছে। যত বেশী খেলা খেলবে তারা তত বেশী আয় করবে। এই মুহূর্তে তিন ধরনের ফর্মেটে এ+ভুক্ত শীর্ষ পাঁচ খেলোয়ারই নিজেদের প্রমান করে চলেছেন। এই ক্যাটাগরি তাদের প্রাপ্য।

এ ক্যাটাগরি ভুক্ত খেলোয়াড়দের কিভাবে বাছাই করা হয়েছে এ সম্পর্কে ঐ কর্মকর্তা বলেছেন, দ্বিতীয় গ্রুপে যারা রয়েছে তারা অন্তত এক ধরনের ফর্মেটে নিজেদের অবস্থান নিশ্চিত করেছেন। যেমন সাহা ও পুজারা। তারা এই গ্রুপে আছেন কারন একটি ফর্মেটে তাদের ওপর আস্থা রাখতেই হয়। সীমিত ওভারের ক্রিকেট থেকে ধোনী অবসর নিয়েছেন, অশ্বীন ও জাদেজা এখন আর এই ফর্মেটে স্থায়ী নয়।
নতুন চুক্তিতে বি-ক্যাটাগরিতে রয়েছেন কে এল রাহুল, উমেশ যাদব, কুলদ্বীপ যাদব, যুযভেন্দ্র চাহাল, হার্দিং পান্ডিয়া, ইশান্ত শর্মা ও দিনেশ কার্তিক। বি ক্যাটাগরিতে প্রতি খেলোয়াড় বার্ষিক তিন কোটি রুপি পাবে।
এদিকে সি-ক্যাটাগরিতে রয়েছেন কাদের যাদব, মনিশ পান্ডে, আক্সার প্যাটেল, করুন নায়ার, সুরেশ রাইনা, পার্থিব প্যাটেল ও জয়ন্ত যাদব। এই খেলোয়াড়রা বার্ষিক এক কোটি রুপি আয় করবেন।
বিসিসিআই কর্মকর্তা বলেছেন বি ক্যাটাগরিতে এমন খেলোয়াড়রা রয়েছেন যার ভাসমান, যাদেরকে সময়ের প্রয়োজনে যেকোন ফর্মেটে কাজে লাগানো যায়। ভারতের হয়ে গত এক বছরে অন্তত একটি ম্যাচ যে খেলেছে তাকে সি ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে।