সিরিয়ায় গণহত্যা বন্ধের দাবিতে ছাত্র ফেডারেশনের বিক্ষোভ সমাবেশ

আজ ৩ মার্চ ২০১৮, শনিবার, বিকেল সাড়ে ৪ টায় জাতীয় জাদুঘরের সামনে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের আয়োজনে সিরিয়ায় চলমান গণহত্যা বন্ধের দাবিতে এক প্রতিবাদী বিক্ষোভ-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সহ-সাধারণ সম্পাদক উম্মে হাবিবা বেনজির, সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান খান রিচার্ড, অর্থ সম্পাদক ইসরাত জাহান, ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক এম এইচ রিয়াদসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সমাবেশ পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আশরাফুল হক ইশতিয়াক।

বক্তারা বলেন, কয়েক বছর ধরে সিরিয়ায় হত্যাকা- চলছে। ২০১১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত কয়েক লাখ মানুষ হত্যার শিকার হয়েছেন। বহু মানুষ উদ্বাস্তু ও শরণার্থী হয়েছেন। এখনো সিরিয়ায় বিদ্রোহী দমনের নামে নির্বিচারে মানুষ হত্যা চলছে। গণহারে শিশুদেরও হত্যা করা হচ্ছে। গৌতা অঞ্চলসহ বিভিন্ন স্থানে সিরিয়া ও তার মিত্রবাহিনীর যৌথভাবে বর্বরোচিত হামলা পরিচালনা করেছে। সেখানে রাসায়নিক বোমা মেরে হাজার হাজার মানুষকে গুরুতর আহত করা হচ্ছে। নিহতদের কিছু খবর পাওয়া গেলেও আসলে কতো মানুষ আহত হচ্ছেন তার কোনো হিসেব পাওয়া যাচ্ছে না। গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ ও চিত্রের মাধ্যমে অনুমান করা যায় হামলা সংঘটিত অঞ্চলে অবস্থানরত প্রায় সকলেই মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এবং আহত হচ্ছে। এই হত্যাযজ্ঞ বন্ধের জন্য শান্তিকামী সকল মানুষ ও দেশকে এগিয়ে আসতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে গোলাম মোস্তফা বলেন, বিদ্রোহী দমনের নামে সিরিয়া শিশু নিধন চলছে। বোমা মেরে, বিমান হামলা করে বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা করা হচ্ছে এবং ঘরবাড়ি, দালানকোঠা গুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। এই বর্বরোচিত হত্যাকা- ও ধ্বংসযজ্ঞ কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে বিভিন্ন দেশ থেকে সিরিয়ায় অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ করতে হবে। গণহত্যা বন্ধে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে একটা প্রতিবাদপত্র পাঠাতে হবে। সিরিয়ার সঙ্কটের অবসান ও চলমান গণহত্যা বন্ধের জন্য শক্তিশালী আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক ফোরামকে গণহত্যা বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। তিনি, গণহত্যায় নিয়োজিত সিরিয়া ও সিরিয়ার মিত্রবাহিনীর উপর চাপ সৃষ্টির জন্য বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক মহলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।