পিছিয়ে গেল খালেদা জিয়ার জামিনের সম্ভাবনা

প্রেসটাইম২৪: দুর্নীতি মামলায় কারা-দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার আজ (রোববার) জামিন হয়নি।

জামিনের আবেদনের ওপর শুনানির পর হাইকোর্ট বলেছে, বিচারিক আদালত থেকে রায়ের নথিপত্র পাওয়ার পর তারা সিদ্ধান্ত দেবেন।

আদালতের কাছে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র দেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপক্ষকে ১৫ কার্যদিবস সময় দেওয়া হয়েছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে গত ৮ই ফ্রেবুয়ারি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয় খালেদা জিয়ার। সোমবার ঐ মামলার রায়ের বিরুদ্ধে এবং তার জামিনের পক্ষে হাইকোর্টে আপীল করেন মিসেস জিয়ার আইনজীবীরা।

বিকেলের দিকে ৪৫ মিনিটের মত শুনানির পর বিচারপতি এনায়েতুর রহিম এবং বিচারপতি শহিদুল করিম তাদের সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর হাইকোর্ট চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে শতাধিক বিএনপি পন্থী আইনজীবী।

এর আগে খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বয়সের কারণে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার প্রয়োজনের যুক্তি তুলে ধরার পাশাপাশি বলেন- তিন বারের মত নির্বাচিত একজন প্রধানমন্ত্রী জামিন পাওয়ার যোগ্য।

এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে জামিনের আবেদন চ্যালেঞ্জ করে বলেন – বাংলাদেশের ইতিহাসে এতিমের টাকা তছরুপের নজির এটাই প্রথম।

মাহবুবে আলম তার বক্তব্যে দুর্নীতির মামলায় জেনারেল এরশাদের এবং ভারতের সিনিয়র রাজনীতিবিদ লালু প্রসাদ যাদবের কারাদণ্ড হওয়ার নজির উপস্থাপন করেন।