ফ্রিজে মিলল গৃহকর্মীর লাশ!

প্রেসটাইম২৪: কুয়েতে নিখোঁজ এক ফিলিপিনো গৃহকর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে তারই নিয়োগদাতার ফ্ল্যাটের ডিপ ফ্রিজ থেকে। এক বছরেরও আগে ২৯ বছর বয়স্ক জোয়ানা ডেমাফেলিস নিখোঁজ হন। ডিপ ফ্রিজ থেকে জমে যাওয়া তার মৃতদেহটি উদ্ধারের পর তাকে হত্যার সন্দেহে তার নিয়োগদাতা নাদের এসাম আসাফকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। খবর বিবিসি বাংলার।

ফিলিপিনের কর্মকর্তারা বলছেন, জোয়ানার মৃতদেহে নির্যাতনের চিহ্ন ছিল। গত সপ্তাহে মৃতদেহটি ম্যানিলায় ফেরত আনা হয়েছে। ফিলিপিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুক্রবার বলেছে, নাদের এসাম আসাফ লেবাননের নাগরিক এবং সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নাদের এসাম আসাফের অ্যাপার্টমেন্টটি এক বছর ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। তার সিরিয়ান স্ত্রী মোনাও এখন পলাতক। তাকেও একজন সন্দেহভাজন বলে বিবেচনা করা হচ্ছে, তবে তিনি এখন সিরিয়ায় আছেন বলে মনে করা হয়। মোনা এবং তার স্বামী দুজনের নামেই ইন্টারপোলের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক হুলিয়া জারি হয়েছিল।

জোয়ানা ডেমাফেলিসের মৃত্যুর ঘটনা ফিলিপিনের ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি করে এবং তার পর কুয়েতে ফিলিপিনোরদের কাজ করতে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ফিলিপিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ্যালান পিটার আসাফের গ্রেফতারের খবরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। কুয়েতি কর্তৃপক্ষও বলেছে, এ ব্যাপারে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে সবকিছুই করা হবে।

ফিলিপিনের কর্তৃপক্ষ বলছে, এ ঘটনার পর ১ হাজারেরও বেশি ফিলিপিনোর কর্মীকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে – যাদের বেশির ভাগই গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করত। কুয়েতে প্রায় ২২ হাজার ফিলিপিনো নাগরিক কাজ করে ।